আপনি যদি এসইও কে কর্মজীবন হিসেবে বেচে নিতে চান? তাহলে আপনাকে এই পোস্ট এ সিদ্ধান্ত নিতে সাহায্য করব যে এসইও আপনার জন্য পছন্দের ক্যারিয়ার কিনা।

সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশান বা এসইও নতুন কিছু নয়। এটি প্রায় দুই দশক ধরে চলছে কিন্তু গত কয়েক বছরে এটি একটি বাস্তব পেশা হিসাবে ভূমিকা অর্জন শুরু করেছে।

আপনি যদি এসইওকে ক্যারিয়ারে অংশ নিতে চান তবে সঠিক প্রশিক্ষণের পাশাপাশি কিছু বিষয় বিবেচনার কারণ রয়েছে। একজন পেশাদার এসইও এক্সপার্ট তার কিছু এক্সট্রা দক্ষতা রাখে যা তাকে সামনে এগিয়ে নিয়ে সাহায্য করে।

এসইও শুরু করার ১০টি ধাপ

ডিজিটাল মার্কেটিংয়ে চাকরি পেতে এবং এসইওতে সফল কর্মজীবন শুরু করার জন্য নিচের ১০টি ধাপ অনুসরণ করতে পারেন

ধাপ-১ঃ আপনার এসইও দক্ষতা তৈরি করুন
ধাপ-২ঃ আপনার লেখার দক্ষতা বারিয়ে তুলুন
ধাপ-৩ঃ ইন্টারনেট সম্পর্কে ব্যসিক দক্ষতা অর্জন করুন
ধাপ-৪ঃ নিজের ক্রিয়েটিভিটি বারিয়ে তুলুন
ধাপ-৫ঃ কিভাবে এসইও সরঞ্জাম ব্যবহার করে তা শিখতে হবে
ধাপ-৬ঃ গুগল ওয়েবমাস্টার এ এক্সপার্ট হতে হবে
ধাপ-৭ঃ প্রতিদিন এসইও প্র্যাকটিস করতে হবে
ধাপ-৮ঃ গুগল বিজ্ঞাপন ও অন্যান্য বিষয়ে দক্ষতা অর্জন করতে হবে
ধাপ-৯ঃ আপনার প্রথম ক্লায়েন্ট এর কাজ নিতে হবে
ধাপ-১০ঃ এসইও নিয়ে যেকোনো বিষয় এর ইন্টার্ভিউ দেয়ার অভিজ্ঞতা থাকতে হবে

ধাপ-১ঃ আপনার এসইও দক্ষতা তৈরি করুন


SEO সম্পর্কিত কাজের জন্য আবেদন করার আগে, আপনাকে প্রয়োজনীয় SEO জ্ঞান থাকতে হবে।

SEO এর যে বিষয় গুলা সম্পর্কে অবশ্যই ধারণা থাকতে হবে

১। Keyword Research (কী-ওয়ার্ড রিসার্চ)
২। On Page Optimization (অন পেজ অপটিমাইজেশন)
৩। Off Page Optimization (অফ পেজ অপটিমাইজেশন)
৪। Competition Analysis (কম্পিটিশন অ্যানালাইসিস)

SEO(এসইও) এ white hat & black hat SEO এর মধ্যে white hat SEO হচ্ছে অরগানিক(Organic) ভাবে কোন ওয়েবসাইটকে গুগল বা সার্চ ইঞ্জিন এ রান করানো। Black Hat SEO হচ্ছে কালো টুপি এর এসইও।

ধাপ-২ঃ আপনার লেখার দক্ষতা বারিয়ে তুলুন


SEO(এসইও) এর মধ্যে খুব সাধারণ বিষয় গুলোর মধ্যে রয়েছে, Page title, description, image alt tag, H2 tag, এবং content optimization.

SEO তে এগুলোর অপটিমাইজেশন অবশ্যই করতে হবে। যা একটি ওয়েবসাইটকে আরও Informative বা তথ্যপূর্ণ করে তোলে এবং সার্চ ইঞ্জিনকে ওয়েবসাইট সম্পর্কে ভালো ইনফরমেশন দেয়।

তাই এগুলো লেখার দক্ষতা অর্জন করতে হবে।

ধাপ-৩ঃ ইন্টারনেট সম্পর্কে ব্যসিক দক্ষতা অর্জন করুন


এসইও করার জন্যে ইন্টারনেট সম্পর্কে বিশেষ কিছু ধারণা থাকতে হবে। যেমনঃ ইন্টারনেট ব্রাউজ করা। বিভিন্ন ওয়েবসাইট সম্পর্কে ব্যসিক ধারণা থাকা ইত্যাদি।

ধাপ-৪ঃ নিজের ক্রিয়েটিভিটি বারিয়ে তুলুন


ক্রিয়েটিভিটি অর্থাৎ কাজ করার ক্ষমতা। সময়ের সাথে সাথে সবকিছু আপডেট হচ্ছে, আপনাকেও দিন দিন আপডেট হতে হবে। ক্লায়েন্ট কি চায় সে সম্পর্কে প্রচুর পড়াশুনা করতে হবে। ক্লায়েন্ট এর সব সমস্যার সমাধান থাকতে হবে আপনার কাছে।

Learning is Earning. কথাটি সবসময় মনে রাখবেন।

Learning is earning

ধাপ-৫ঃ কিভাবে এসইও সরঞ্জাম ব্যবহার করে তা শিখতে হবে


এসইও তে প্রচুর Tools(সরঞ্জাম) রয়েছে। ফাস্ট সেগুলোর ব্যবহার জানতে হবে। বিভিন্ন Tools গুলোর মধ্যে বিপুল ব্যবহিত Tools গুলো হচ্ছে

১। Mozbar
২। ahref
৩। keyword.io
৪। semrush
৫। keyword everywhere etc.

এই tools গুলোর ব্যবহার জানতে হবে। যা আপনার কাজকে অনেক সহজ করে তুলবে, এবং কাজকে আরও আরাম দায়ক করবে।

ধাপ-৬ঃ গুগল ওয়েবমাস্টার এ এক্সপার্ট হতে হবে


গুগল ওয়েবমাস্টারকে গুগল সার্চ কনসল ও বলা হয়। এটি দিয়ে গুগলকে বলে দেয়া যায় আমার ওয়েবসাইটটি কি সম্পর্কিত, এখানে কি ধরনের content পাবলিশ করা হয়। গুগল কে ওয়েবসাইট-এর Sitemap চিনিয়ে দেয়া যায়। যা ওয়েবসাইট-কে রাঙ্ক করাতে অনেক বেশি সাহায্য করে।

ওয়েবসাইট-এর Backlick গুলো এখান থেকে দেখা যায়। competitor যদি আমাদের সাইটের রাঙ্ক হারানোর জন্যে আমাদের কোন bad সাইট থেকে Link Provide করে, সেগুলো আমরা ওয়েবমাস্টার থেকে monitor বা দেখতে পাব এবং গুগল কে বলে দিতে পারব। যে লিঙ্ক গুলো অন্য কারো করা তুমি এগুলকে Remove করে দাও।

google webmaster tools

ধাপ-৭ঃ প্রতিদিন এসইও প্র্যাকটিস করতে হবে


এসইও তে ভালো কিছু করার জন্য প্রতিদিন প্র্যাকটিস করা বাঞ্ছনীয়। এসইও তে প্রতিনিয়ত আপডেট আসে, এই দিকে সবসময় সচেতন থাকতে হবে।

গুগল সহ অন্যান্য সার্চ ইঞ্জিন এর আপডেট দেখতে হবে। একটি ওয়েবসাইট-কে খুব সহজেই রাঙ্ক করাতে গুগল এর টার্ম & কন্ডিশন গুলো জানতে হবে। এসইও এক্সপার্ট দের ধারণা গুগল এর ২০০টি টার্ম & কন্ডিশন আছে।

ধাপ-৮ঃ গুগল বিজ্ঞাপন ও অন্যান্য বিষয়ে দক্ষতা অর্জন করতে হবে

গুগল বিজ্ঞাপন কি?
গুগল বিজ্ঞাপন হচ্ছে গুগলকে paid করে ওয়েবসাইট কে টপ-এ show(দেখানো)। এগুলোকে বলা হয় Google Ads (গুগল বিজ্ঞাপন)।

google ads campaign

ধাপ-৯ঃ আপনার প্রথম ক্লায়েন্ট এর কাজ নিতে হবে


এসইও এর জন্যে ক্লায়েন্ট এর কাজ নেয়াটা জরুরী। আপনি ওই সব কাজ এ অ্যাপ্লাই করবেন যেটা সম্পর্কে আপনার পূর্ণ ধারণা আছে। এসইও নিয়ে যদি আপনার skill(দক্ষতা) স্বয়ং-সম্পূর্ণ থাকে হলে কাজ নিতে পারেন।

আপনাকে সর্বদা আপনার কাজের quality এর দিকে খেয়াল করতে হবে। ক্লায়েন্ট এর কথা আগে মন দিয়ে শুনুন, আপনার কোন প্রশ্ন থাকলে করে নিবেন।

মনে রাখবেন, ক্লায়েন্ট কিন্তু আপনাকে যখন তখন সময় দিতে পারবে না।

সব কিছু বুজে নেয়া শেষ হলে শুরু করে দিন আপনার ফাস্ট ক্লায়েন্ট এর কাজ। আর সবসময় Quality maintain করুন।

first client meet

ধাপ-১০ঃ এসইও নিয়ে যেকোনো বিষয় এর ইন্টার্ভিউ দেয়ার অভিজ্ঞতা থাকতে হবে


চাকরির ক্ষেত্রে আমরা সবাই একটা কথা জানি যে, চাকরি কনফার্ম হওয়ার আগে ইন্টার্ভিউ হয়। এসইও তেও ইন্টার্ভিউ আছে।

এখানে ক্লায়েন্ট আপনাকে যা যা জিজ্ঞাস করবে তার সব উত্তর আপনাকে দিতে হবে। তাছাড়া ক্লায়েন্ট আপনাকে সে কাজ দিবে না। কাজেই এই বিষয় এ ও আগে পড়াশুনা করে নিবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here